টেকনাফে একই পরিবারের ৫ জনের মৃত্যু পাহাড় ধসে

টেকনাফে একই পরিবারের ৫ জনের মৃত্যু পাহাড় ধসে

নিজস্ব প্রতিবেদক, টেকনাফ (কক্সবাজার)
বিসিবিনিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম

কক্সবাজারের সীমান্ত উপজেলা টেকনাফে পাহাড় ধসে একই পরিবারের পাঁচজন নিহত ও তিনজন আহত হয়েছেন। এসময় তিনটি বাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

২৮ জুলাই (বুধবার) রাত ১টার দিকে উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের পানখালী ভিলেজার পাড়ায় এই দুর্ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, টানা ভারি বৃষ্টিপাতের কারণে বুধবার রাত ১টার দিকে বাড়ির পার্শ্ববর্তী পাহাড়ের একটি বড় অংশ স্হানীয় মৃত লাল মিয়ার ছেলে ছৈয়দ আলম, আজি উল্লাহর ছেলে নুরুল আমিন ও মৃত আজি উল্লাহ মেয়ে হাসিনা বেগমের বসতবাড়িতে পড়ে। ওই সময় বাড়িতে ঘুমিয়ে থাকা ছৈয়দ আলম, তার স্ত্রী রেহেনা বেগম (৩৮), তাদের ছেলে আব্দু শুক্কুর (২০), মোঃ জুবাইর (১০), জিয়া উদ্দিন (৭), মেয়ে কহিনুর আক্তার (১২), জায়নুফা আক্তার (১০) ও মৃত আজি উল্লাহর মেয়ে হাসিনা বেগম মাটিচাপা পড়েন।

বিকট শব্দের খবর পেয়ে স্থানীয়রা ঘটনাস্থলে এসে আব্দু শুক্কুর, মোঃ জুবাইর, জিয়া উদ্দিন, কহিনুর আক্তার ও জায়নুফা আক্তারের মরদেহ উদ্ধার করেন।

এছাড়া ছৈয়দ আলম, তার স্ত্রী রেহেনা বেগম ও হাসিনা বেগমকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

খবর পেয়ে গভীর রাতেই হ্নীলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রাশেদ মাহমুদ আলী ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে তিনি বলেন, পাহাড় ধসের ঘটনায় ৪নং ওয়ার্ডের ভিলেজার পাড়ার সৈয়দ আলমের তিন ছেলে ও দুই মেয়ের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। বাড়ির পাশের পাহাড় ধসে পড়ায় এ দুর্ঘটনা ঘটেছে।

চেয়ারম্যান রাশেদ জানান, টানা বর্ষণে হ্নীলা ইউনিয়নে শতশত বসতবাড়ি প্লাবিত ও বিধ্বস্ত হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে সহায় সম্পদ। মানুষের দুর্ভোগ চরমে।

প্রশাসনের পক্ষ থেকে জরুরি ভিত্তিতে সহযোগিতা চেয়েছেন তিনি।

এই পোর্টালে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।




এই পাতার আরও সংবাদ