জায়েদ খানের প্রার্থিতা বাতিলের সিদ্ধান্ত হাইকোর্টে স্থগিত

নিপুণকে জয়ী ঘোষণা, পদ হারালেন জায়েদ খান

ডেস্ক রিপোর্ট
বিসিবিনিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম

চিত্রনায়ক জায়েদ খানের প্রার্থিতা বাতিল করে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনের আপিল বোর্ডের দেয়া সিদ্ধান্ত স্থগিত করেছেন হাইকোর্ট।

বিচারপতি মামনুন রহমান ও বিচারপতি খোন্দকার দিলীরুজ্জামান সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ সোমবার রুলসহ এই আদেশ দেন।

রুলে প্রার্থিতা বাতিলের সিদ্ধান্ত কেন অবৈধ হবে না, তা এক সপ্তাহের মধ্যে সংশ্লিষ্ট বিবাদীদের জানাতে বলা হয়েছে। আপিল বোর্ড, সমাজ সেবা অধিদপ্তরের সংশ্লিষ্টদের আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে এই রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

সেই সঙ্গে জায়েদ খানের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালনের ক্ষেত্রে কোনো রকম প্রতিবন্ধকতা যেন সৃষ্টি করা না হয়, আদালত তা নিশ্চিত করতে বলেছে।

জায়েদ খানের আইনজীবী নাহিদ সুলতানা যুথি সাংবাদিকদের বলেন, চল‌চ্চিত্র শিল্পী স‌মি‌তির নির্বাচনে সাধারণ সম্পাদক পদে জায়েদ খান জয়ী হলেও তার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী নিপুণ আক্তারের অভিযোগের প্রেক্ষিতে নির্বাচনের আপিল বোর্ডকে ২ ফেব্রুয়ারি একটি চিঠি দিয়েছিল সমাজসেবা অধিদপ্তর, তাদের এ বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে বলেছিল। জায়েদ খান যে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হল, সেখানে আপিল বোর্ড তার প্রার্থিতা বাতিল করে দিল। তা করে নিপুণ আক্তারকে হাত তুলে জয়ী করে দিল। সে কারণে আমরা আদালতে আসি।

তিনি বলেন, আদালত এ বিষয়ে রুল দিয়েছে এবং আপিল বোর্ডর সিদ্ধান্ত স্থগিত করেছে। সমাজ কল্যাণ অধিদপ্তরের চিঠির কার্যকারিতাও স্থগিত করেছে। এছাড়া জায়েদ খানকে যথারীতি সাধারণ সম্পাদক হিসেবে বাধাহীনভাবে দায়িত্ব পালনের আদেশ দিয়েছে আদালত।

এই আদেশের মাধ্যমে ‘ন্যায়বিচার’ পেয়েছেন মন্তব্য করে জায়েদ খান সাংবাদিকদের বলেন, ‘আদালত আমার ন্যায়সঙ্গত অধিকার ফিরিয়ে দিয়েছে, এই জন্য আদালতকে ধন্যবাদ জানাই। আমি সুষ্ঠু সুন্দর একটি নির্বাচনের মাধ্যমে জয়লাভ করেছি। নিপুণ যত অভিযোগ করেছিলেন, সবগুলো তার মনগড়া।’

আদালতে জায়েদ খানের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন, আহসানুল করিম, নাহিদ সুলতানা যুথি।

অন্যদিকে চিত্রনায়িকা নিপুণ আক্তারের পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার রোকন উদ্দিন মাহমুদ। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিপুল বাগমার ও সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল সেলিম আজাদ।

এর আগে সোমবার সকালে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনে আপিল বোর্ডের প্রার্থিতা বাতিলের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে আবেদন করেন জায়েদ খান।

গত ৫ ফেব্রুয়ারি জায়েদ খানের প্রার্থিতা বাতিল করে নিপুণকে শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক ঘোষণা করে নির্বাচনী আপিল বোর্ড।

এফডিসিতে ডাকা এক সভা শেষে এ ঘোষণা দেন বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনের আপিল বোর্ডের চেয়ারম্যান সোহানুর রহমান সোহান। নির্বাচনী আচরণবিধি না মানায় জায়েদ খানের সাধারণ সম্পাদক পদ বাতিল করা হয়েছে। ফলে তার পরিবর্তে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় চিত্রনায়িকা নিপুণকে এই পদে জয়ী দেখানো হয়।

সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা মোতাবেক এফডিসিতে সাধারণ সম্পাদক পদে জায়েদ খান ও কার্যকরী সদস্য পদে চুন্নুর নির্বাচন আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ নিয়ে বৈঠকে বসে আপিল বোর্ড। সেখানে আরও উপস্থিত ছিলেন আপিল বোর্ডের চেয়ারম্যান সোহানুর রহমান সোহান, বোর্ডের সদস্য মোহাম্মদ হোসেন, দুই নির্বাচন কমিশনার জাহিদ হোসেন ও বি এইচ নিশান, অভিযোগকারী নিপুণ।

জায়েদ খান আপিল বোর্ডের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আদালতে যাওয়ার কথা জানালে নিপুণও বলেছেন, তিনি আইনি পথেই জায়েদকে মোকাবিলা করবেন।

এই পোর্টালে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।