বাবার শ্রাদ্ধের আগেই পরপারে ৪ ছেলে, আহাজারি আর শোকে স্তব্ধ পরিবার

বাবার শ্রাদ্ধের আগেই পরপারে ৪ ছেলে, আহাজারি আর শোকে স্তব্ধ পরিবার

নিজস্ব প্রতিবেদক, চকরিয়া (কক্সবাজার)
বিসিবিনিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম

সরোজ সুশীল বার্ধক্যজনিত রোগে মাত্র ১০ দিন আগে মারা গেছেন। তার ৭ ছেলে ও ১ মেয়ে বাবার শ্রাদ্ধ করতে ঘরের আঙিনায় প্যান্ডেল তৈরি করেছেন। আজ বুধবার ছিল সেই শ্রাদ্ধ অনুষ্ঠান। কিন্তু, বাবার শ্রাদ্ধের আগের দিন মঙ্গলবার ভোর ৫টার দিকে ৭ ভাই ও ১ বোন নিজেদের বাবার মৃত্যুর আনুষ্ঠানিকতা ‘কোড়কর্ম’ করতে বাড়ির কাছে মহাসড়কের পাশে যান। সেখানে তারা কোড়কর্মের প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। ওই সময় কক্সবাজার থেকে চট্টগ্রামমুখী মালবাহী একটি পিকআপ ভ্যান (মিনি ট্রাক) ৮ ভাই-বোনকে চাপা দেয়। এতে ৩ ভাই ঘটনাস্থলেই ও এক ভাই চকরিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়ার পথে মারা যান। আহত হয় অপর ৪ ভাই-বোন। তাদের মধ্যে গুরুতর আহত এক ভাইকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এবং এক বোন ও ২ ভাইকে খ্রিস্টান মেমোরিয়াল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

মঙ্গলবার ভোরে হৃদয়বিদারক এই ঘটনা ঘটে কক্সবাজার-চট্টগ্রাম মহাসড়কের চকরিয়া উপজেলার ডুলাহাজারা ইউনিয়নের মালুমঘাট হাসিনা পাড়াস্থ রাস্তার মাথায়।

পিকআপের চাকায় পিষ্ট আপন ৪ ভাই, মৃত্যুযন্ত্রণায় আরও ৩ ভাই-বোন

পিকআপ চাপায় নিহত ৪ ভাই হলেন মৃত সরোজ সুশীলের ছেলে অনুপম সুশীল (৪৫), নিরুপম সুশীল (৩৮), দিপক সুশীল (৩৬) ও চম্পক সুশীল (৩৬)।

আহতরা হলেন স্বরণ সুশীল (২৮), রক্তিম সুশীল (৩৫), প্লাবন সুশীল (২৪) ও মেয়ে হীরা সুশীল (২৭)। তাদের মধ্যে স্বরণ সুশীলের অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

আহত অন্যরা মালুমঘাট মেমোরিয়াল খ্রিস্টান হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন বলে জানিয়েছেন ওই হাসপাতালের মেডিক ডা. সুমন নাথ।

এরা সবাই মালুমঘাট হাসিনা পাড়ার বাসিন্দা।

ডুলাহাজারা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হাসানুল ইসলাম আদর বলেন, ১০ দিন আগে হতাহতদের বাবা সরোজ সুশীল মারা যান। আজ মঙ্গলবার ছিলো তাদের বাবা সরোজ সুশীলের কোড়কর্ম এবং বুধবার শ্রাদ্ধ অনুষ্ঠান।

ধর্মীয় রীতি অনুযায়ী মঙ্গলবার ভোর ৫টার দিকে তারা সাত ভাই ও এক বোন কোড়কর্ম করতে হাসিনা পাড়াস্থ রাস্তার মাথায় যায়। ওখানে তারা তাদের কোড়কর্ম করতে রাস্তার পাশে দাঁড়ায়। এ সময় একটি দ্রুতগামী পিকআপ (মিনি ট্রাক) এসে তাদের চাপা দিয়ে পালিয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই চার ভাই নিহত হন। অন্য চারজনকে স্থানীয় লোকজন উদ্ধার করে মালুমঘাট মেমোরিয়াল খ্রিস্টান হাসপাতালে নিয়ে যায়।

তিনি বলেন, নিহত ৪ সহোদরের সৎকার করার জন্য ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষ থেকে সব ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

কক্সবাজারের চকরিয়ার মালুমঘাট হাইওয়ে থানার ইনচার্জ শাফায়েত হোসেন বলেন, পিকআপ চাপায় নিহতদের লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। ঘাতক পিকআপটি জব্দ ও চালককে আটক করার চেষ্টা চলছে।

বাবার শ্রাদ্ধের আগেই পরপারে ৪ ছেলে, আহাজারি আর শোকে স্তব্ধ পরিবার

স্বজনদের আহাজারি
সরোজ সুশীল মারা গেছেন ১০ দিন আগে। সেই শোক চলছে পরিবারে। এখনো শ্রাদ্ধ হয়নি তার। বাবার শ্রাদ্ধের আগের দিন শোকাবহ সন্তানরা কোড়কর্মও সারতে পারেননি। তার আগেই ৮ ভাই-বোনের মধ্যে ৪ ভাই চলে গেলেন পরলোকে।

৯১ সালের প্রলয়ঙ্করী ঘূর্ণিঝড় ও জ¦লোচ্ছাসের পর ঘর-ভিটে হারিয়ে কুতুবদিয়ার সরোজ স্ত্রী ও ৩ শিশু-সন্তানকে নিয়ে চকরিয়ার ডুলাহাজারাস্থ মালুমঘাটে চলে আসেন। এখানকার হাসিনা পাড়ায় ভিটে কিনে ঘর তৈরি করে বসবাস করে আসছিলেন। এর মধ্যে আরো ৫ সন্তানের জন্ম হয়। সুখেই কাটছিল তাদের জীবন।

কিন্তু ১০ দিন আগে সরোজ মারা গেলে পরিবারে নেমে আসে শোকের ছায়া। ধর্মীয় রীতিতে বাবার শোক পালন করছিলেন সন্তানরা। এরই মধ্যে ৪ সহোদর বাবার শোক পালন করতে গিয়ে পিকআপ চাপায় মারা গেলে ওই পরিবারে নেমে আসে ঘোর অমানিশা। এ যেন শোকের উপর মহাশোক ভর করেছে। এ শোক সাগরে পরিবারের সবাই হতবাক। আহাজারি ও আর্তনাদে ভারী হয়ে উঠেছে শোকের পরিবেশ।

বাবার শ্রাদ্ধের আগেই পরপারে ৪ ছেলে, আহাজারি আর শোকে স্তব্ধ পরিবার

হাসপাতালেই নিহতদের মা বানু রানী সুশীল ও নিহত অনুপমের স্ত্রী পপি রানী সুশীলসহ পরিবারের সবাই কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। ক্ষণে ক্ষণে মূর্ছাও যাচ্ছিলেন তারা। হাসিনা পাড়াস্থ বাড়ির উঠানে সরোজ সুশীলের শ্রাদ্ধের জন্য তৈরী করা প্যান্ডেলে পাড়ার নারী-পুরুষরাও জড়ো হয়েছেন। তাদেরও কেউ কেউ কাঁদছিলেন এবং এক অপরকে ধৈর্য্য ধরার শান্তনা দিচ্ছিলেন।

হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ চকরিয়া উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক মুকুল কান্তি দাশ শোক প্রকাশ করে বলেন, বাবার মৃত্যুতে কোড়কর্ম করতে গিয়ে ৪ সহোদরের মৃত্যু মেনে নেয়া যায় না। এটি শুধু দূর্ঘটনা নয়, হত্যার সামিল।

ব্যাখ্যায় তিনি বলেন, কোড়কর্ম করতে ৮ ভাই-বোন সড়কের উপর নয়, পাশেই দাঁড়িয়ে ছিলেন। পিকআপটি সড়ক ছেড়ে রাস্তার পাশে গিয়েই চাপা দেয় তাদের।

এ ঘটনার তদন্তপূর্বক যথাযথ ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানান তিনি।

এই পোর্টালে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।




এই পাতার আরও সংবাদ