প্রথমবার সিনেমায় লাক্স তারকা ঊর্মিলা

Urmila

লাক্স তারকা হিসেবে ২০০৯ সালে শোবিজে পথচলা শুরু করেন ঊর্মিলা শ্রাবন্তী কর। এরপর তিনি অসংখ্য নাটক ও বিজ্ঞাপনে কাজ করেছেন। জয় করেছেন দর্শকের মন। তবে একটা আক্ষেপ ছিল তার ভক্তদের। ক্যারিয়ারের প্রায় এক দশক পেরিয়ে গেলেও এখন পর্যন্ত বড় পর্দায় দেখা যায়নি তাকে।

সেই আক্ষেপ এবার ফুরাতে চললো। প্রথমবারের মতো চলচ্চিত্রে অভিনয় শুরু করলেন তিনি। মুক্তিযুদ্ধের গল্প নিয়ে নির্মিত এ চলচ্চিত্রের নাম রাখা হয়েছে ‘ফ্রম বাংলাদেশ’।

এটি পরিচালনা করছেন শাহনেওয়াজ কাকলী।

এতে ঊর্মিলার বিপরীতে দেখা যাবে কলকাতার জি বাংলার জনপ্রিয় সিরিয়াল ‘করুণাময়ী রানি রাসমণি’র অভিনেতা গাজী আবদুন নূরকে। ৭০০-র বেশি পর্ব অতিক্রম করে এরই মধ্যে বাংলাদেশ ও ভারতে তুমুল জনপ্রিয়তা পেয়েছেন তিনি। তার গ্রহণযোগ্যতার কথা ভেবেই ঊর্মিলার বিপরীতে নূরকে বাছাই করেছেন পরিচালক।

ঊর্মিলা শ্রাবন্তী তার প্রথম চলচ্চিত্র নিয়ে বলেন, ‘আমি খুবই আনন্দ মনে চলচ্চিত্রে অভিষেকের অপেক্ষা করছি। দীর্ঘ ১০ বছরে বহুবার সিনেমায় কাজের প্রস্তাব এসেছে। কিন্তু নানা কারণে করা হয়ে ওঠেনি।

কাকলী আপাকে অনেক ধন্যবাদ জানাই আমি। চমৎকার একটি গল্পে তিনি আমাকে অভিনয়ের সুযোগ করে দিলেন। পাশাপাশি এখানে কলকাতার জনপ্রিয় মুখ নূর ও আমাদের কিংবদন্তি অভিনেত্রী ফেরদৌসী মজুমদারকে পেয়েছি ছবিতে। এটাও আমার জন্য প্রাপ্তির। আমি ভীষণ আশাবাদী ছবিটি নিয়ে।’

নিজের চরিত্র নিয়ে এই লাক্স তারকা বলেন, ‘ছবিতে আমি নূরের স্ত্রী। এখানে আমার শাশুড়ি ফেরদৌসী মজুমদার। তিনিই ছবির কেন্দ্রীয় চরিত্র। নাম কাননবালা। এখানে মুক্তিযুদ্ধের সময়কালকে দেখানো হবে।’

গত ১০ অক্টোবর থেকে মানিকগঞ্জের বিভিন্ন স্থানে ছবির দৃশ্যধারণ শুরু হয়েছে। চলবে ১০ নভেম্বর পর্যন্ত। এখানে আরও অভিনয় করছেন চিত্রনায়িকা তমা মির্জা, আশীষ খন্দকার, মৌসুমী নাগ, হিল্লোলসহ অনেকে।

এদিকে নূর কলকাতায় জনপ্রিয়তা পেলেও তার বাড়ি বাংলাদেশে। বাগেরহাট জেলার মোল্লারহাট উপজেলায় তার বাড়ি। মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পর্যায়ের পড়াশোনা করেছেন সেখানেই। কলকাতায় যান ২০১১ সালে। এরপর পড়াশোনা শেষ করে কলকাতার মিডিয়ায় যুক্ত হন। তিনি প্রথম অভিনয় করেন নার্গিস আক্তারের পরিচালনায় স্যার সেলিম আল দীনের ‘যৌবতী কন্যার মন’ ছবিতে।

এই পোর্টালে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।