১৪ লাখ ইয়াবা নিয়ে ডিবি’র হাতে ধরা নুনিয়াছড়ার ফারুক ও বাবু

Yaba Faruk

বিশেষ প্রতিবেদক
বিসিবিনিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম

কক্সবাজার জেলায় এ যাবতকালের সর্ববৃহৎ নিষিদ্ধ ইয়াবা ট্যাবলেটের চালান জব্দ করেছে জেলা ডিবি পুলিশ। ১৪ লাখ পিস ইয়াবার এই চালানটির সাথে পাচারে জড়িত দুই ইয়াবা কারবারিকে আটক করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (৯ ফেব্রুয়ারি) বেলা ১টা ২০ মিনিটের দিকে কক্সবাজার সদর উপজেলার চৌফলদন্ডী ব্রীজের কাছে একটি ইঞ্জিনচালিত ট্রলার থেকে ওই ওই ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।

পুলিশের দাবি মতে, ৭টি বস্তায় বোঝাই করা ২০ কাট (৭ বস্তায় ১৪০ কার্টুন), যাতে ১৪ লাখ ইয়াবা ছিল।

ওই সময় বৃহৎ এই চালান পাচারে জড়িত দুই মাদক কারবারি জহিরুল ইসলাম ওরফে ফারুক (৩৭) ও নুরুল আমিন ওরফে বাবুকে (৫৫) গ্রেফতার করা হয়।

জহিরুল ইসলাম ফারুক কক্সবাজার শহরের উত্তর নুনিয়াছড়া এলাকার নজরুল ইসলাম ও সাবেক ইউপি মেম্বার রাজিয়া বেগমের ছেলে ও নুরুল আমিন বাবু একই এলাকার মোজাফফরের ছেলে।

ডিবি পুলিশের একটি দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ওই অভিযান চালায়।

পুলিশ সুপার মোঃ হাসানুজ্জামান বলেন, এই চালানের সাথে একটি চক্র জড়িত। এই চক্রের দুইজনকে হাতেনাতে গ্রেফতার করা হয়েছে। চক্রের অন্য সদস্যদের ব্যাপারে খোঁজ নেয়া হচ্ছে।

তিনি বলেন, যতদূর জানা যায় এ যাবৎকালের সবচেয়ে বড় ইয়াবা চালান (১৪ লাখ পিস) এটি।

পুলিশ সুপার জানান, ধৃত দুইজনের মধ্যে একজন ইঞ্জিনচালিত ট্রলার থেকে নদীতে লাফ দিয়ে পালানোর চেষ্টা করেছিল। ডিবি পুলিশের দুইজন সদস্য পাল্টা নদীতে লাফ দিয়ে সাঁতরে উলঙ্গ অবস্থায় ওই মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করে।

পুলিশ সুপার মোঃ হাসানুজ্জামান নিজেই পুরো অভিযানটি পরিচালনা ও তদারকি করেন।

প্রসঙ্গত, ইতোপূর্বে ধৃত জহিরুল ইসলাম ফারুকের ভগ্নিপতি কক্সবাজার শহরের বাহারছড়া এলাকা থেকে বিপুল পরিমাণ ইয়াবাসহ গ্রেফতার হয়েছিলেন। তিনি এখনও কারাগারে আছেন।

এই পোর্টালে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।




এই পাতার আরও সংবাদ