স্ত্রীর চিকিৎসা করতে গিয়ে ভারতে মারা গেলেন কক্সবাজারের সাংবাদিক

স্ত্রীর চিকিৎসা করতে গিয়ে ভারতে মারা গেলেন কক্সবাজারের সাংবাদিক

বিশেষ প্রতিবেদক, কক্সবাজার
বিসিবিনিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম

স্ত্রীর চিকিৎসা করতে গিয়ে নিজেই করোনাভাইরাসে আক্রান্ত মারা গেলেন কক্সবাজারের প্রবীণ সাংবাদিক ও কলামিষ্ট নজরুল ইসলাম বকসী। তিনি আজ রোববার (১৮ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ভারতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজেউন।

নজরুল ইসলাম বকসীর পারিবারিক সুত্র মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। সাংবাদিক বকসীর আদিনিবাস সিলেটে হলেও তিনি কক্সবাজারে স্থায়ী হিয়েছেন। কক্সবাজার প্রেস ক্লাবের প্রতিষ্টাতা সদস্য মরহুম শাহাব উদ্দিন চৌধুরী তাঁর শ্বশুর।

সাংবাদিক বকসীর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন সাংবাদিক ইউনিয়ন কক্সবাজার এর সভাপতি মমতাজ উদ্দিন বাহারী ও সাধারণ সম্পাদক আনছার হোসেন।

পারিবারিক সুত্র মতে, সহধর্মিণী লুৎফা বকসীর চিকিৎসার জন্য গত ১৮ মার্চ ভারতে যান নজরুল ইসলাম বকসী। সেখানেই গত ২৪ মার্চ থেকে নিজেই প্রচন্ড জ্বরসহ অন্যান্য রোগে আক্রান্ত হন। পরে করোনার স্যাম্পল টেস্ট করালে রিপোর্ট আসে ‘পজেটিভ’।

সুত্র মতে, নজরুল ইসলাম বকসীর আগেই ওপেনহার্ট সার্জারী হয়েছিল। তিনি কক্সবাজার শহরের লিংকরোডস্থ মুহুরী পাড়ায় স্থায়ী নিবাস গড়েছিলেন।

নজরুল ইসলাম বকসী জীবনের শুরুতে দীর্ঘদিন প্রিন্ট মিডিয়া দক্ষতার সাথে কাজ করেছিলেন। দীর্ঘদিন তিনি কক্সবাজার প্রথম নিয়মিত দৈনিক ‘দৈনিক সৈকতে’ কাজ করেছেন। শেষ জীবনে তিনি বাংলাদেশ বেতার কক্সবাজার স্টেশনের নিয়মিত খবর পাঠক, উপস্থাপক ছিলেন।

মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী ও দুই সন্তান রেখে গেছেন। তার দুই সন্তান হলো ভাষা ও বর্ণ।

প্রসঙ্গত, করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর ভারতের ভেলোর সিএমসি হাসপাতালে করোনা হাইভেন্টিলেশনে চিকিৎসাধীন ছিলেন নজরুল ইসলাম বকসী। একই হাসপাতালে হেমাটোলজী ক্যানসার বিভাগে কেমোথেরাপি নিচ্ছেন স্ত্রী লুৎফা বকসী।

এদিকে সাংবাদিক ও কলামিষ্ট নজরুল ইসলাম বকসীর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করে বিবৃতি দিয়েছে সাংবাদিকদের অধিকার আদায়ের সংগঠন ‘সাংবাদিক ইউনিয়ন কক্সবাজার’।

সংগঠনটির সভাপতি মমতাজ উদ্দিন বাহারী ও সাধারণ সম্পাদক আনছার হোসেন মরহুম সাংবাদিক বকসীর আত্মার মাগফেরাত কামনা ও শোকসন্তপ্ত পরিবারবর্গের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

এই পোর্টালে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।