ইসরায়েলে ‘শান্তির জন্য’ গাজায় হামলা চালিয়ে যাবেন নেতানিয়াহু!

ইসরায়েলে ‘শান্তির জন্য’ গাজায় হামলা চালিয়ে যাবেন নেতানিয়াহু!

বিশ্ব ডেস্ক
বিসিবিনিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম

‘ইসরায়েলে শান্তি ফেরাতে’ যতদিন প্রয়োজন ততদিন ফিলিস্তিনের গাজায় হামলা চলবে বলে হুঁশিয়ার করেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু।

বিবিসি বলছে, গাজায় ৯ দিনের গোলাবর্ষণে ‘হামাস অনেক বছর পিছিয়ে পড়েছে’ বলেও মন্তব্য করেন ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী।

ফিলিস্তিনের সশস্ত্র গোষ্ঠী হামাস ‘অপ্রত্যাশিত আঘাতের’ মুখোমুখি হয়েছে দাবি করে নেতানিয়াহু বলেন, ইসরায়েলি জনগণের মধ্যে শান্তি ফিরিয়ে আনতে যতদিন প্রয়োজন হামলা চলবে।

২০১৪ সালের যুদ্ধের পর গত ৯ দিনে ইসরায়েলি হামলার সবচেয়ে ভয়াবহ ধ্বংসযজ্ঞ দেখেছে ফিলিস্তিন। দ্বিতীয় সপ্তাহে গড়ানো এই সংঘাতে ১০০ নারী ও শিশুসহ অন্তত ২১৫ জন নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

মঙ্গলবার ইসরায়েল জানিয়েছে, গাজায় নিহতদের মধ্যে ১৫০ জনই সশস্ত্র ‘জঙ্গি’। অবশ্য হামাসের পক্ষে তাদের যোদ্ধাদের হতাহতের বিষয়ে কোনো কিছু জানানো হয়নি।

অপরদিকে ফিলিস্তিনিদের রকেটে ইসরায়েলে দুই শিশুসহ ১২ জন নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে দেশটির স্বাস্থ্য বিভাগ।

বিবিসি জানায়, বুধবার রাতে কয়েক ডজন হামলা চালিয়েছে ইসরায়েলি বিমান, যার বেশিরভাগই খান ইউনিস নগরীতে। অন্যদিকে ফিলিস্তিনি রকেট হামলার মধ্যে ইসরায়েলের দক্ষিণ এবং মধ্যাঞ্চলে সাইরেনের শব্দ শোনা গেছে।

বুধবার ভোরেও ইসরায়েল এবং হামাসের মধ্যে গোলাগুলি হয়েছে। সকালে গাজার মধ্যাঞ্চলে একটি অ্যাপার্টমেন্ট লক্ষ্য করে ইসরায়েলি বিমানের গোলায় ফিলিস্তিনের দুইজন ‘সশস্ত্র যোদ্ধা’ নিহত হয়েছেন।

এদিকে যুদ্ধবিরতির আহ্বান জানিয়ে মিশর ও জর্ডানকে সঙ্গে নিয়ে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে একটি খসড়া প্রস্তাব দিয়েছে ফ্রান্স। প্রতিবেদনে বলা হয়, সংঘাতের অবসানে কূটনৈতিক তৎপরতা খুব সামান্যই সফল হয়েছে।

তবে মঙ্গলবার সকালের দিকে সহায়তা নিয়ে একটি গাড়ি বহর গাজায় ঢোকার জন্য কিছু সময়ের জন্য সীমান্ত খুলে দিয়েছিল ইসরায়েল। অবশ্য ফিলিস্তিনের মর্টার এবং রকেট হামলার পরই তা আবার বন্ধ করে দেয়া হয়।

এই পোর্টালে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।