প্রেম করে বিয়ের ৭ দিন পরই শ্বশুরবাড়িতে মিলল লাশ

প্রেম করে বিয়ের ৭ দিন পরই শ্বশুরবাড়িতে মিলল লাশ

সারাদেশ ডেস্ক
বিসিবিনিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম

গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দগঞ্জে বিয়ের ৭ দিন পর শ্বশুর বাড়ি থেকে শারমিন আকতার (১৫) নামের এক গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

বুধবার (১৯ মে) সকালে উপজেলার মহিমাগঞ্জ ইউনিয়নের ছয়ঘড়িয়া গ্রাম থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।

নিহত শারমিন আকতার পাশের সাঘাটা উপজেলার সাথালিয়া গ্রামের মোজাফ্ফর রহমানের মেয়ে।

এ ঘটনায় জুয়েল মিয়া নামের এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ। তিনি একই গ্রামের ঠান্ডু আকন্দের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, দীর্ঘদিন প্রেমের পর গত বুধবার (১২ মে) ওই গ্রামের আশরাফুল ইসলামের ছেলে রেহান মিয়ার সঙ্গে শারমিন আক্তারের বিয়ে হয়। এ বিয়ে মেনে নিতে পারেনি রেহানের পরিবার। বুধবার সকালে প্রতিবেশীরা ঘরে শারমিনের মরদেহ দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেন। পরে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালে পাঠায়।

এদিকে নিহত গৃহবধূর স্বজনদের অভিযোগ, শারমিনের শ্বশুরবাড়ির লোকজনের নির্মম নির্যাতনে তার মৃত্যু হয়েছে।

এ ব্যাপারে গোবিন্দগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) একেএম মেহেদি হাসান বলেন, নিহতের শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। এ বিষয়ে হত্যা মামলা দায়ের প্রক্রিয়া চলছে।

এই পোর্টালে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।




এই পাতার আরও সংবাদ