পাঁজাকোলা করে বের করা হয় ৯৬ মিনিট পর

বোট ক্লাবে বন্ধ হয়ে যায় বিদ্যুৎ, গায়ে হাত তোলা হয় পরীমণির

পাঁজাকোলা করে বের করা হয় ৯৬ মিনিট পর

ডেস্ক রিপোর্ট
বিসিবিনিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম

হঠাৎ বিদ্যুৎ বন্ধ। ঢাকা বোট ক্লাবের বারজুড়ে অন্ধকার। অশোভনীয় গালিগালাজ। পুরুষ ও নারী কণ্ঠ। এরমধ্যেই ঠাসঠাস শব্দ। যেনো কেউ কারও গায়ে হাত তুলছে। ব্যথা পেয়ে শব্দ করছে কেউ। বেশ কয়েক মিনিট এভাবেই মারধরের ঘটনা ঘটে।

যখন বিদ্যুৎ আসে তখন প্রায় অচেতন চিত্রনায়িকা পরীমণি। এক পর্যায়ে কস্টিউম ডিজাইনার জিমি ও ক্লাবের নিরাপত্তাকর্মীর সহযোগিতায় বের করা হয় পরীমণিকে।

এভাবেই ৯ জুন রাতে সাভারের বিরুলিয়ার ঢাকা বোট ক্লাবে ঘটে যাওয়া ঘটনার বর্ণনা দিয়েছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন সদস্য জানান, রাত ১২টার দিকে তিনি দেখেছেন ক্লাবের নির্বাহী কমিটির সদস্য (বর্তমানে বহিষ্কৃত) নাসির উদ্দিন মাহমুদ, পরীমণি ও তাদের সঙ্গীরা বসে আছেন। তার প্রায় আধা ঘণ্টার মধ্যেই এই ঘটনা ঘটে। এই ঘটনার শেষে পরীমণিকে বেশ অসুস্থ দেখা যাচ্ছিলো। তার গাল দুটি লাল হয়ে ছিল। এক পর্যায়ে ক্লাব থেকে বের হন নাসির উদ্দিন মাহমুদ।

ওই রাতে বাইরে যারা দায়িত্ব পালন করেছেন তারা কেউ এ বিষয়ে কথা বলতে চাননি। তবে সংশ্লিষ্ট একটি সূত্র মতে, পরীমণি যখন ক্লাবে যান তখন নাসির উদ্দিন মাহমুদকে কল দেন পরীমণির সঙ্গে থাকা অমি। কিছুক্ষণের মধ্যে নাসির উদ্দিন মাহমুদ এসে তাদের নিচতলার রেস্টুরেন্ট হয়ে দ্বিতীয় তলায় বারে নিয়ে যান।

সে রাতে ঘটনার পাঁচদিন পর নাসির উদ্দিন মাহমুদ ও অমিকে আসামি করে ধর্ষণচেষ্টা ও মারধরের অভিযোগে সাভার থানায় মামলা করেন পরীমণি। তার আগে ফেসবুকে এ বিষয়ে একটি স্ট্যাটাস দেন তিনি। মামলা দায়েরের পর গ্রেপ্তার করা হয় নাসির উদ্দিন মাহমুদ, অমিসহ পাঁচজনকে। বর্তমানে তাদের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করছে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ।

পাঁজাকোলা করে বের করা হয় ৯৬ মিনিট পর

চিত্রনায়িকা পরীমণি

সিসি ক্যামেরার ফুটেজে যা দেখা গেল
ঘটনা তদন্তে এরইমধ্যে গোয়েন্দারা বোট ক্লাব ও বনানী থানা থেকে কিছু সিসি ক্যামেরার ফুটেজ সংগ্রহ করেছেন। এসব ফুটেজ বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, বোট ক্লাবের রিসিপশন দিয়ে ক্লাবের বারে প্রবেশ করে অচেতন অবস্থায় বের হওয়া পর্যন্ত মোট ৯৬ মিনিট পরীমণি ও তার সঙ্গীরা ক্লাবের ভেতরে অবস্থান করেছেন। ১২টা ২৩ মিনিটে স্বাভাবিকভাবেই পরীমণি ও তার সঙ্গীরা বারে প্রবেশ করেন। কিন্তু ১টা ৫৯ মিনিটে পরীমণিকে কোলে করে বের করা হয়। দীর্ঘ এই সময় সেখানে কি হয়েছিল সেটি নিয়েই প্রশ্ন সর্বত্র।

ভিডিও ফুটেজে দেখা যায়, ৯ জুন বুধবার রাত ১২টা ২২ মিনিট। বোট ক্লাব ভবনের চেকপোস্টে এসে থামে একটি কালো রঙের গাড়ি। নিরাপত্তাকর্মীরা গাড়িটিকে উদ্দেশ্য করে সালাম দিয়ে সামনে এগিয়ে আসেন। তখন কালো গাড়ির পেছনে সাদা রঙের আরেকটি গাড়ি এসে থামে। কালো গাড়ির সামনের বাম পাশের দরজা খুলে বের হয়ে আসেন চিত্রনায়িকা পরীমণি। তার মুখে ছিল সাদা মাস্ক। পরনে কালো টপস ও নীল জিন্স প্যান্ট। পেছনের ডান পাশের দরজা খুলে বের হন তুহিন সিদ্দিকী অমি ও পরীমণির কস্টিউম ডিজাইনার জিমি। জিমির পরনে ছিল কালো হাতাকাটা গেঞ্জি ও হাফ প্যান্ট। অমির পরনে ছিল সাদা গেঞ্জি ও প্যান্ট। পরীমণি নিজে পেছনের দরজা খুলে বের করে নিয়ে আসেন তার ছোট বোন বনিকে। তার পরনে ছিল লাল টপস ও জিন্স প্যান্ট। সাদা গাড়ি থেকে বের হন মাস্ক পরা আরও দু’জন। তাদের নামিয়ে দিয়ে ১২টা ২৩ মিনিটে দুটি গাড়ি ক্লাব ভবনের সামনে থেকে বেরিয়ে যায়। পরে অমি মোবাইল ফোনে কারও সঙ্গে একজন নিরাপত্তাকর্মীর কথা বলিয়ে দিয়ে ভেতরে প্রবেশ করেন।

১২টা ২৩ মিনিট ৩৬ সেকেন্ডে পরীমণি, তার বোন বনি, অমি ও জিমি রিসিপশন দিয়ে বারে প্রবেশ করেন। এ সময় রিসিপশনের ডেস্কে দু’জন ও সামনে আরেকজন উপস্থিত ছিলেন। প্রায় ৯৬ মিনিট পর রাত ১টা ৫৯ মিনিটে জিমি ও ক্লাবের একজন নিরাপত্তাকর্মী পরীমণিকে অচেতন অবস্থায় কোলে নিয়ে রিসিপশন দিয়ে বাইরে বের হয়ে যান। তাদের পেছন পেছন দৌড়াচ্ছিলেন পরীমণির বোন বনি। তার কয়েক সেকেন্ড পরে স্বাভাবিকভাবেই বার থেকে বের হয়ে যান অমি। সেখানে আগে থেকেই সাদা রঙের একটি গাড়ি দাঁড়ানো ছিল।

পাঁজাকোলা করে বের করা হয় ৯৬ মিনিট পর

চিত্রনায়িকা পরীমণি

পরীমণিকে কোলে নিয়ে বের হওয়া দেখে নিরাপত্তাকর্মীরা দৌড়ে গিয়ে গাড়ির সামনের ও পেছনের দরজা খুলে দেন। জিমি ও ওই নিরাপত্তাকর্মী পরীমণিকে সাদা গাড়ির সামনের সিটে নিয়ে বসান। পরে গাড়ির পেছনের সিটে জিমি ও বনি ওঠার পরপরই গাড়িটি ক্লাব থেকে বের হয়ে যায়। রাত ২টার দিকে গাড়িটি ক্লাব থেকে বের হওয়ার সময় অমিকে গাড়ির কাছে এসে কিছু বলতে দেখা গেছে।

এদিকে বনানী থানার বাইরের সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজে দেখা যায়, রাত ৩টা ৫২ মিনিটে বনানী থানায় প্রবেশ করেন পরীমণি। প্রথমে তারা ডিউটি অফিসারের রুম হয়ে থানার ভেতরে প্রবেশ করেন। পরে একজন অফিসার তাদের ডিউটি অফিসারের কাছে যেতে বলেন। পরীমণি ডিউটি অফিসারের রুমে গিয়ে তার বরাবর চেয়ারে বসেন এবং ঘটনার বর্ণনা দেন। তবে ডিউটি অফিসার তার কথা বুঝতে পারছিলেন না। পরে তাকে পুলিশের একটি গাড়িতে এভারকেয়ার হাসপাতালে পাঠানো হয়।

গুলশানের ক্লাবে ভাঙচুরের অভিযোগ পরীমণির বিরুদ্ধে
ঢাকা বোট ক্লাবে যাওয়ার আগে রাজধানীর গুলশানের একটি ক্লাবে ভাঙচুর করার অভিযোগ উঠেছে চিত্রনায়িকা পরীমণির বিরুদ্ধে। গত ৮ জুন রাতে গুলশান-১ এর ১৩৭ নম্বর সড়কের অল কমিউনিটি ক্লাব লিমিটেডে (এসিসিএল) এই ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, গত ৮ জুন রাতে বোট ক্লাবে যাওয়ার আগে অল কমিউনিটি ক্লাব লিমিটেডে (এসিসিএল) যান এই অভিনেত্রী। এ বিষয়ে গুলশান বিভাগের পুলিশের উপ-কমিশনার সুদীপ কুমার চক্রবর্তী বলেন, ৮ জুন রাতে অল কমিউনিটি ক্লাব থেকে ৯৯৯-এ কল করে জানানো হয় পরীমণি সেখানে ঝামেলা করছেন। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে এর প্রমাণ পায়। কিন্তু এ ঘটনায় কোনো মামলা বা সাধারণ ডায়েরি হয়নি বলে জানান তিনি।
সুত্র : মানবজমিন

এই পোর্টালে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।